Fri. Feb 26th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সভাপতি হতে শিক্ষাগত  যোগ্যতা নির্ধারণ প্রক্রিয়া চলছে। মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে এ যোগ্যতা নিরূপণের কথা ভাবছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। শিগগিরই এ ব্যাপারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একটি বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানা গেছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির এ প্রতিবেদককে বলেন, বিভিন্ন সময় মন্ত্রণালয় থেকে সভাপতি পদের যোগ্যতা নির্ধারণের কথা বলা হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে স্নাতক যোগ্যতা নির্ধারণের সুপারিশ থাকে। মহাপরিচালক বলেন, স্নাতক না হলেও শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ করে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। আসন্ন এক বৈঠকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্তের কথাও জানান তিনি। তথ্য মতে, সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় প্রতিটি বিদ্যালয়ে ১১ সদস্যবিশিষ্ট পরিচালনা পর্ষদ গঠন করা হয়। এদের মধ্যে প্রধান শিক্ষক সদস্য সচিব, একজন শিক্ষক প্রতিনিধি, নিকটবর্তী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক প্রতিনিধি, জমিদাতার একজন প্রতিনিধি, কাউন্সিলর বা ইউপি সদস্য, শিক্ষানুরাগী দুজন, অভিভাবক প্রতিনিধি চারজনসহ মোট ১১ জন সদস্য নির্বাচন করা হয়। এদের মধ্যে একজনকে সভাপতি ও একজনকে সহসভাপতি হিসেবে নির্বাচন করা হয়।

জানা গেছে, অনেক বিদ্যালয়ে কমিটির সভাপতি হিসেবে নিরক্ষর ব্যক্তিকে নির্বাচন করায় প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। শিক্ষা না থাকায় অনেক সময় শিক্ষকদের সঙ্গে সভাপতি খারাপ আচরণ করেন। সভাপতিরা স্থানীয় ব্যক্তি ও ক্ষমতাবান হওয়ায় নানা ধরনের অনিয়ম করলেও শিক্ষকরা ভয়ে তাদের বাধা  দেন না।

Leave a Reply