Thu. Feb 25th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফরিদপুর শহরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াছিন শেখ নামে হত্যা ও ধর্ষণ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছে। রোববার(১৫ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে শহরের লঞ্চঘাট জোড়া ব্রিজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সে শহরের ওয়ারলেস পাড়ার মনি শেখের পুত্র।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত ইয়াসিন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমাকে ধর্ষণ ও হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিল। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা ৩টি মামলা আদালতে বিচারাধীন।

পুলিশ জানায়, রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে ছবি সংগ্রহ করে ধর্ষক ইয়াছিনকে চিহ্নিত করা হয়। এরপর স্থানীয়দের সহয়তায় তাকে আটক করা হয়। গতরাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধার করতে গেলে তার সহযোগী ও পুলিশের মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। সে সময় ইয়াছিন গুলিবিদ্ধ হয়।  পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।এ ঘটনায়   তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

গত ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমা বেগম(১৪)কে রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠ থেকে তুলে নিয়ে যায় ইয়াছিন নামে ওই যুবক। পরের দিন টেলিগ্রাম অফিসের পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।ফাতেমাকে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। ফাতেমার বাবার নাম এলাহি শরিফ। তিনি রিক্সা চালানোর পাশাপাশি সোনালী ব্যাংকের এটিএম বুথের গার্ড হিসেবে কাজ করেন।

Leave a Reply