Mon. Mar 8th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উখিয়ার কুতুপালংয়ে দেখা যাচ্ছে রোহিঙ্গা কবিরাজ। তারা বিভিন্ন বনজ ওষুধের নামে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের সঙ্গে প্রতারণা ও কৌশল অবলম্বন করে হাতিয়ে নিচ্ছে কাড়ি কাড়ি টাকা।

কুতুপালং বাজারের ভিতরে ও প্রধান সড়কের আশেপাশে দেখা গেছে লতাপাতা ও বোতল ভর্তি তরল ওষুধ নিয়ে বসে আছেন বেশ কয়েকজন কবিরাজ। তৎমধ্যে মংডু সাহাব বাজার এলাকার কবিরাজ মিয়াজান (৫৫) একই এলাকার আর এক কবিরাজ ফয়েজুল্লার সঙ্গে আলাপ হয় তাদের কবিরাজি ব্যবসা নিয়ে। এসব কবিরাজি কোথা থেকে শেখা হয়েছে জানতে চাইলে তারা বলেন, তাদের কাছে কবিরাজি বই আছে। ঐ বই পড়ে বনজঙ্গল থেকে গাছ গাছালি সংগ্রহ করে ওষুধ তৈরি করে থাকেন তবে। তাদের ওষুধে কি কি উপকার জানতে চাওয়া হইলে ঐ কবিরাজ জানান, তাদের ওষুধ সব ধরনের রোগ ভালো করে।

রোহিঙ্গা নেতা দিল মোহাম্মদ বলেন, এসব ধোঁকাবাজি। তাদের ওষুধে কোন কাজ হয় না। প্রধান সড়ক ছাড়াও ক্যাম্পের আনাচে কানাচে শত শত কবিরাজ গাছের লতাপাতা ও বোতলজাত ওষুধ নিয়ে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের সঙ্গে প্রতারণা করছে। কোন অফিসার গেলে তারা ব্যবসা গুটিয়ে পালিয়ে যায়। এছাড়াও উখিয়ার হাট-বাজরে কোন প্রকার পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়া ভিন্ন পেশার মানুষ কবিরাজি পেশায় জড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে।

উপজেলা নির্বাহী মো: নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ক্যাম্পে কোন ধরনের কবিরাজি ওষুধ বিক্রি করা যাবে না। এমনকি রোহিঙ্গাদের ব্যবসা গুটিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ সম্পন্ন হলে রোহিঙ্গাদের অনেক কিছু নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

Leave a Reply