Tue. Mar 9th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পটুয়াখালীর এক আওয়ামী লীগ নেতার স্ত্রীকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করিয়ে দেওয়ার বিনিময়ে সাত লাখ টাকা দাবি করায় একজন ব্যাংক কর্মকর্তাকে গ্রে,,প্তার করেছে পুলিশ।

গ্রে,প্তার ফয়সল হোসেন (৩৪) রাষ্ট্রায়ত্ত্ব বেসিক ব্যাংকের বাবু বাজার শাখায় কর্মরত।

তার গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরে। শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) রাতে ঢাকার মিরপুর এলাকা থেকে

তাকে গ্রে,,প্তার করা হয় বলে শেরেবাংলা নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, পটুয়াখালী পৌরসভার সাবেক মেয়র আফজাল হোসেনের স্ত্রী শামসুন্নাহার গত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন।

‘সাত লাখ টাকার চুক্তিতে ফয়সল এই দেখা করার সুযোগ করে দেয়। প্রাথমিকভাবে তিন

দফায় এক লাখ ৮০ হাজার টাকা দেয়। ২ জানুযারি প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করার পরপরই বাকি টাকার জন্য চাপ দেওয়ার পাশপাশি শামসুন্নাহারের ভাইকে জিম্মি করে ফেলে ফয়সল।

আর এজন্য ওই দিন গণভবন থেকে বের হতে পারছিলেন না শামসুন্নাহার। পরে বিষয়টি

গণভবনে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কাছে বিস্তারিত জানান তিনি।

’ পরে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশকে অবহিত করে ফয়সলের বি,রুদ্ধে প্রতারণা ও জিম্মি করার অভিযোগ এনে মামলা করেন শামসুন্নাহার।

শুক্রবার এই মামলার পরপরই ফয়সলকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান আবুল কালাম আজাদ।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাতেই বিষয়টি জানার পর পুলিশ তৎপর হলে শামসুন্নাহারের ভাইকে ছেড়ে দেয় ফয়সল।

টনার বিস্তারিত তুলে ধরে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, শামসুন্নহারের স্বামী সাবেক পৌরমেয়র স্থানীয় আওয়ামী লীগের একজন নেতা।

বর্তমানে রাজনৈতিকভাবে তিনি এলাকায় ‘পিছিয়ে আছেন’। পাশপাশি তিনি অসুস্থ। এসব বিষয় প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়ে সুদৃষ্টি পাওয়ার

আশায় গণভবনের আশপাশে ঘোরাঘুরি করতে গিয়ে ফয়সলের সাথে কিছুদিন আগে পরিচয় হয় শামসুন্নাহারের।

‘পরে ফয়সল প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করিয়ে দেবার কথা বলে সাত লাখ টাকা চায়। এ নিয়ে

তাদের মধ্যে চুক্তি হয়।’ ফয়সলকে শনিবার (৪ জানুয়ারি) আদালতে পাঠিয়ে রি,মান্ডের আবেদন করা হবে বলে জানান পরিদর্শক আজাদ।

Leave a Reply