Mon. Mar 1st, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ সরোয়ার জাহান সোহাগ, ডিমলা,নীলফামারী প্রতিনিধি

করোনার মধ্যে আবারও সব রকমের চালের দামে আগুন লেগেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে চালের দাম বেড়েছে ০৮ থেকে ১০ টাকা। আর মাসের ব্যবধানে বেড়েছে ১২ থেকে ১৪ টাকা। অভিযোগ উঠেছে, একশ্রেণির মুনাফালোভী ব্যবসায়ী পরিকল্পিতভাবে চালের দাম বাড়িয়েছেন। আর ব্যবসায়ীরা দাবি করছেন, পরিবহন ও শ্রমিক সংকটের কারণে দাম কিছুটা বেড়েছে।

বাবুরহাট বাজারের চাল ব্যবসায়ী আঃ মজিদ বলেন, আড়তে চাল নাই। সরবরাহ কম থাকায় চালের দাম বেড়েছে। তাছাড়া ইদানিং ত্রাণ দিতে অনেকে মোটা চাল কিনছেন। এ কারণে বাজারে মোটা চালের চাহিদা বেড়েছে। ফলে গত সপ্তাহেই বেড়েছে চালের দাম।

মিল মালিকরা জানিয়েছেন, এখন ধানের অভাব রয়েছে। সরকার ৬ লক্ষ মেট্রিকটন ধান ক্রয় করেছে। তাছাড়া ধানের দামও বেশি। যে পরিবহন পাওয়া যাচ্ছে, তার জন্য বাড়তি টাকা দিতে হচ্ছে। আবার শ্রমিক সংকট। তাই চালের দামও বেড়েছে। নতুন চাল এলে এবং পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক হলে দাম কিছুটা কমে যাবে।

ডিমলা উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক, তফিউজ্জামান জুয়েল বলেন, ‘আমরা বাজার মনিটরিং করছি। প্রয়োজনে আরও জোরালো পদক্ষেপ নেবো। সেক্ষেত্রে চালের দাম মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই যেন থাকে, আমরা নিয়মিত তদারকি করছি। তিনি আরও বলেন, সরকারী গুদামে খাদ্য মজুদ রয়েছে।

Leave a Reply