Fri. Feb 26th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সোনালী ব্যাংক, রংপুর বাজার শাখার (মিঠুর গলি) ৬ কর্মকর্তা/কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। ওই শাখার ১১ কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে ৭ জন জ্বর, সর্দি ও কাশি দেখা দেওয়ায় গত বুধবার (২২ এপ্রিল) সকাল থেকে ব্যাংকটির যাবতীয় কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়।

জানাগেছে, গত বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) রংপুর বিভাগে ৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই দিন সোনালী ব্যাংক বাজার শাখায় কর্মরত মেরিন নামে এক নারী কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার রিপোর্ট পাওয়া যায়।

এরপরের দিন শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) রংপুর মেডিকেলে ৬ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। তার মধ্যে রংপুর সোনালী ব্যাংক বাজার শাখার ৩ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার রিপোর্ট আসে। আক্রান্তরা হলেন শাহজালাল আজাদ, এস এম হুমায়ূন এবং কবির এনায়েত উল্লাহ।

এর পর শনিবার (২৫ এপ্রিল) বিভাগে ৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়। এর মধ্যে ২ জন সোনালী ব্যাংক বাজার শাখায় কর্মরত। আক্রান্তরা হলেন, নুরপুরের নজরুল ইসলাম ও ঠিকাদারপাড়ার মাহফিদা খন্দকার। এ নিয়ে গত তিনদিনে ওই শাখার ৬ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন।

অনুসন্ধানে জানাগেছে, মহানগরীর শালবনমিস্ত্রিপাড়া নিবাসী রংপুর পরিবার পরিকল্পনা অফিসের আয়া স্বপ্না বেগম করোনায় আক্রান্ত হয়। স্বপ্না বেগমের স্বামী সোনালী ব্যাংক, বাজার শাখায় কর্মরত। তার মাধ্যমেই এই ব্যাংকে করোনা সংক্রমনের ঘটনা ঘটেছে বলে সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছে।

সোনালী ব্যাংক রংপুর প্রধান শাখার ডিজিএম আব্দুল বারেক চৌধুরী জানিয়েছেন, ব্যাংকের সাতজন জ্বর, সর্দি ও কাশিসহ বিভিন্ন উপসর্গে ভুগছিলেন। অসুস্থদের মধ্যে ৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে গেছে স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন।

এদিকে রংপুরের সিভিল সার্জন হিরম্ব কুমার রায় জানান, করোনা আক্রান্ত প্রত্যেকের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। আক্রান্তরা গত কয়েকদিনে কোথাও গিয়েছিলেন কিনা? কার কার সাথে মিশেছেন তা শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply