Sat. Mar 6th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ সরোয়ার জাহান সোহাগ, চীফ রিপোর্টার:

ডিমলা উপজেলায় গত কয়েকদিনের মাঝারি ঝড় বৃষ্টিতে ধান,ভূট্টা, চীনা বাদাম, আম,লিচু সহ ফসলের মোটামুটি ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলার গয়াবাড়ী ইউনিয়নের ধান চাষী আখতারুজ্জামান সরকার ডনি বলেন, ঝড় বৃষ্টিতে ধানের ক্ষতি হয়েছে, ক্ষেতের বেশির ভাগ ধান পেকেছে কিন্তুু কয়েকদিনের ঝড় বৃষ্টিতে কিছু কিছু পাকা ধান ঝরে গেছে ও বেশ কিছু ধানগাছ মাটিতে পড়ে গেছে। আমরা কষ্ট করে কিছু ধান কাটলেও বৃষ্টির কারণে মারাই করতে পারছি না। এসব ধান খোলা  অবস্থায় থাকায় উঠানেই নষ্ট হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

ডিমলা  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সেকেন্দার আলী জানান, উজানের ঢলের কারণে ২৫ মে তিস্তায় পানি বেড়ে যাওয়ার কারণে ১৫ হেক্টর চীনা বাদামক্ষেত আক্রান্ত হয়েছে। বাতাস এবং বৃষ্টিতে কিছু কিছু জায়গার ধানক্ষেত, ভূট্টা সহ কিছু ফসল আংশিক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলায় এ পর্যন্ত ৬২ ভাগ ভূট্টা ও ৩৫ ভাগ ধান  ঘরে উঠেছে এবং ৯০ ভাগ ধান পরিপক্ক হয়েছে। আগামী ৭ দিন আবহাওয়া যদি ভালো থাকে তাহলে সম্পূর্ণ ধান ও ভূট্টা ঘরে উঠবে। 

উপজেলার  ঠাকুরগঞ্জ গ্রামের ভূট্টা চাষী ছবিউল ইসলাম বলেন, আমি ৫ বিঘা জমিতে ভূট্টা চাষ করেছি, গত কয়েকদিনের ঝড় বৃষ্টির ফলে প্রায় ১ বিঘা জমির ভূট্টা গাছেই ফেটে ফেটে কালো রং ধারণ করেছে। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে মারাত্নক বিপর্যয়ের মুখে পড়বো। 

আগামী চার থেকে পাঁচদিন হালকা, মাঝারি ও ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা। তিনি বলেন, ঝড়বৃষ্টিতে আম, লিচু ও কিছু ফসলের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে পড়া আম থেকে বিভিন্ন ধরনের আচার জাতীয় মুখরোচক খাদ্য বানাতে তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের অাহবান জানান।

এ বছর উপজেলায় ১০,৬২০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান ও ১১ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে ভূট্টা  আবাদ হয়েছে। 

Leave a Reply