Mon. Mar 1st, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নুর আলম, জলঢাকা প্রতিনিঃ নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় জোড়পূর্বক ইদুর মারা গ্যাসের ট্যাবলেট খাওয়ায় ৩ সন্তানের এক গৃহবধূকে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে স্বামী, শশুড় ও সৎ শাশড়ির বিরুদ্ধে। ঘটনা ঘটেছে উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ঘুঘুমারি বেগপাড়া গ্রামে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহত শিমু বেগমর (৩০) মরদেহ উদ্ধার করে পোস্টমর্টেমের জন্য নীলফামারী পাঠিয়েছে জলঢাকা থানা পুলিশ। এলাকাবাসী ও চেয়ারম্যান হামিদুল ইসলাম সুত্রে জানা যায়, বুধবার রাতে নিহত গৃহবধূ শিমু বেগমকে তার স্বামী আয়েদ আলী, শশুড় ছইফ উদ্দীন ও সৎ শাশুড়ি আলেয়া বেগম  সন্তানদের সামনে হত্যার উদ্দেশে জোড়পূর্বক ইদুর মারা গ্যাসের ট্যাবলেট খাওয়ায়। এতে শিমু বেগমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে ৩ সন্তানসহ শিমু বেগমকে ঘরের মাঝে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তারা। এদিকে শিশুদের কান্না শুনে প্রতিবেশীরা সেখানে উপস্থিত হয়ে শিমু বেগমকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয় চিকিসৎককে খবর দেয়। চিকিৎসক এসে তাকে মৃত্যু ঘোষনা করে। এ বিষয়ে মিরগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আব্দুর রহিম জানান, পারিবারিক কলহের জেরে ঘটনাটি ঘটতে পারে। ঘটনার পর থেকে স্বামি, শশুড় ও সৎ শাশুড়ি পলাতক আছে। তবে তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছেনা। লাশ ময়না তদন্তের জন্য নীলফামারী পাঠানো হয়েছে।      

Leave a Reply