Fri. Feb 26th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পাবনায় ৭০ বছরের বৃদ্ধ হুকুম আলী খাঁকে খুন করে বৃদ্ধের আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের বাড়ি-ঘর লুটপাট করেছে প্রতিপক্ষ।

এ ঘটনায় মামলা হলেও দু’সপ্তাহে গ্রেফতার হয়নি মূল আসামিরা। এখন গ্রামবাসীকে চেপে যেতে বলছে অভিযুক্তরা। না হলে গ্রামের যুবতী তরুণীদের তুলে নেয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে।

এসব অত্যাচারে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী অপরাধীদের গ্রেফতার দাবিতে মঙ্গলবার (২৩ জুন) দুপুরে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করে।

পাবনা সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউনিয়নের মুজিব বাঁধ খাঁ পাড়া সড়কে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নিহত হুকুম খাঁর ছেলে আব্দুল বারেক খাঁ (৪০), মৃত- হুকুম খাঁর স্ত্রী সুফিয়া খাতুন (৬৫), নাছরিন খাতুন (৩৫) এবং আক্কাছ শেখ (৭০)।

মানববন্ধনের পর প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, ভাঁড়ারা এলাকার চিহ্নিত কিছু সন্ত্রাসী গত ৬ জুন বৃদ্ধ হুকুম আলী খাঁকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে। এ ঘটনার পরদিনই পাবনা সদর থানায় মামলা করা হয়। মামলার ১৭ দিন অতিবাহিত হলেও এখনও মূল খুনিরা গ্রেফতার হয়নি। অভিযুক্তরা হত্যা মামলা প্রত্যাহারসহ ওই পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে।

বক্তারা বলেন, সন্ত্রাসীদের কথা না শোনায় তারা এলাকার সাধারণ কৃষকদের অর্ধশত ঘর-বাড়ি লুটপাট করেছে। অনেকের বাড়ি থেকে দিন-দুপুরে গবাদিপশু লুট করে নিয়ে গেছে। এখন এলাকার তরুণী-যুবতীদের তুলে নেয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে ঘোরাঘুরি করছে এবং নিহতের পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে।

তারা বলেন, অনেকে ভয়ে ঘর-বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র বসবাস শুরু করছে। তারা হুকুম খাঁ হত্যার সাথে জড়িত প্রকৃত অপরাধীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন প্রশাসনের কাছে।

jagonews24

এ ব্যাপারে পাবনা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিম আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, পুলিশ এরই মধ্যে দু’জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে। অন্যরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা যায়নি।

তিনি বলেন, করোনা দুর্যোগের জন্য বিভিন্নমুখী কাজের ব্যস্ততার জন্য পুলিশি অভিযান ব্যাহত রয়েছে। তবে কাজে কোনো গাফিলতি করা হয়নি।তিনি আরও বলেন, এরই মধ্যে মামলাটি সিআইডিতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুন সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউনিয়নে খাঁ পাড়া গ্রামে বাড়ি থেকে মৃত কালু খাঁর ছেলে হুকুম আলী খাঁকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় নিহত হুকুম আলীর ছেলে আব্দুল বারেক খাঁ বাদী হয়ে ৩৪ জনের নাম উল্লেখ করে পাবনা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

Jagonews24. com

Leave a Reply