Fri. Feb 26th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাহাঙ্গীর রেজা, স্টাফ রিপোর্টার : নীলফামারীর ডিমলায় তিস্তা নদীর প্রবল স্রেতে চলমান বন্যায় প্লাবিত বাড়িভাঙ্গা ১৩টি পরিবারের মাঝে শুকনা খাবার ও ৩০টি পানিবন্ধি পরিবারের মাঝে শিশু খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

প্রতিটি শুকনা খাবারের প্যাকেটে ছিলো ১০ কেজি চাউল, ১ কেজি মসুর ডাল, ১ কেজি আয়োডিন যুক্ত ফ্রেস লবন, ১ কেজি চিনি, ১ লিটার সোয়াবিন তেল, ২ কেজি শুকনা চিড়া ও ৫০০ গ্রাম লুডুস। শিশু খাদ্যর প্রতিটি প্যাকেটে ছিলো মিল্কভিটা গুড়া দুধ ৪০০ গ্রাম, ১ প্যাকেট বিস্কুট ও ১ কেজি সুজি।

রবিবার (১৯-জুলাই) সকালে উপজেলার খালিশা চাপনী ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের বরাদ্ধকৃত এসব খাদ্য সামগ্রী ও উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের অধিনে খালিশা চাপনী ইউনিয়নের নতুন এবং প্রতিস্থাপন প্রতিবন্ধি ২৭০, বয়স্ক ৭০ ও ৬৫ জন বিধবা ভাতা ভোগীদের মাঝে নতুন বই উক্ত পরিষদ চত্ত্বরে বিতরণ করা হয়।

শুকনা খাবার, শিশু খাদ্য ও ভাতা ভোগীদের মাঝে বই বিতরণ শেষে এবারে কয়েক দফায় ভারীবর্ষন ও উজানের ঢলে তিস্তা নদীর পানি তীরবর্তী এলাকায় প্রবেশ করায় পানিবন্ধি ও ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়শ্রী রানী রায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন খালিশা চাপনী ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান সরকার, খালিশা চাপনী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাব হোসেন সহ ইউপি সদস্য-সদস্যা বৃন্দ।

Leave a Reply