Mon. Apr 19th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


জাহাঙ্গীর রেজা, স্টাফ রিপোর্টার: নীলফামারীর ডিমলায় করোনা মহামারিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এমপিওভুক্ত শিক্ষককের বিরুদ্ধে কোচিং বাণিজ্য অব্যাহত রাখার অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, উপজেলার এমপিওভুক্ত জনতা আলিম মাদ্রসার গণিত বিষয়ের শিক্ষকের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
দেশে করোনা সংক্রমণরোধে চলতি বছরের ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে সরকার। কারণ শিক্ষার্থীরা যেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত না হয় সেজন্য প্রাইভেট-কোচিংয়েও রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু সে নিষেধাজ্ঞার কোনো তোয়াক্কা না করে নিজের ইচ্ছামত কোচিং বাণিজ্য অব্যাহত রেখেছেন ডিমলা উপজেলার দোহলপাড়া এলাকার জনতা আলিম মাদ্রাসার এমপিওভুক্ত শিক্ষক হুমায়ন কবীর। তিনি নিজ বাড়ীর আশপাশ সহ কয়েকটি স্থানে রুম ভাড়ায় কোচিং কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
এদিকে, করোনার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব বজায় না রেখে গণহারে প্রতি সিটে চারজন শিক্ষর্থী নিয়ে কোচিং করায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা অভিভাবকদের। ফলে অবিলম্বে এই কোচিং সেন্টার বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।
সরেজমিনে অর্থাৎ চলমান র্কোচিং সেন্টারে গিয়ে প্রায় অর্ধশতাধীক শিক্ষার্থীর সামনে শিক্ষক হুমায়ন কবীরের কাছে কোচিং বিষয়ে জানতে চাইলে প্রথমে অস্বীকার করে বলেন, আমি কোন এমপিওভুক্ত স্কুলের শিক্ষক না। আমি নন এমপিওভুক্ত উপজেলার উত্তর নাউতারা দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের (বি.এস.সি) গণিত বিষয়ে শিক্ষক।

ভিডিও-

ভিডিও দেখত এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply