Tue. Apr 13th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আসাদুজ্জামান পাভেল , ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি :  নীলফামারীর ডিমলায়  শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে।  ভবন করার নামে সরকারের অনুমতি ও নিয়ম-  নীতি না মেনেই  স্কুলের গাছ কেটে নিলেন প্রধান শিক্ষক।

ঘটনাটি ঘটেছে ২৯-আগস্ট শনিবার নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের ‘বালাপাড়া নিউ মডেল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে’। উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের শোভানগঞ্জ এলাকায় ১৯৯৮ সালে ‘বালাপাড়া নিউ মডেল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় নামে স্কুলটি স্থাপিত হয়। স্কুলটি এখন এমপিও ভুক্ত ৷প্রতিষ্ঠার  পর থেকেই নানা অনিয়ম হয়ে আসছে স্কুলে।

সদ্য স্কুলের ভবন করার নামে স্কুলের মাঠে থাকা একটি কাঁঠাল ও একটি বট     -পাখোর গাছ কেটে নেন প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম। গাছ দুটির আনুমানিক  বাজার মূল্য ৫০ হাজার টাকা। গাছ কাটার সরকারি অনুমতি নেওয়ার কথা থাকলেও এ নিয়ম মানেননি তিনি। মনগড়াভাবে স্কুলের পুরোনো গাছগুলো কেটে নেন। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়শ্রী রানী রায় ও উপজেলা মাধমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হালিম মুঠো ফোনে জানতে চাইলে বলেন, বিধিবর্হিভুত ভাবে স্কুলে থাকা কোন গাছ কাটা হয় তাহলে গাছ কাটা ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইদুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাতে কথা বললে তিনি গাছ কাটার বিষয়ে কিছুই জানেন  না বলে তিনি নিশ্চিত করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হালিম বলেন, গাছ কাটা বিষয়ে আমি জানতে পেরেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামের সাথে গাছ কাটার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বাবা মনছার উদ্দিন (দাতা সদস্য) স্কুল প্রতিষ্ঠার আগেই এ গাছ রোপণ করেন তাই এখন আমি ও আমার ভাই শফিকুল ইসলাম গাছ কাটছি। গাছ কাটার বিষয়ে কোন রেজুলেশন করছেন ? প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, এটা সরকারী প্রতিষ্ঠান না, এটা দাতব্য প্রতিষ্ঠান হাতে গড়া, সবাই মিলে যৌথভাবে কাজ করছি তাতে আমার বাবা গাছ লাগাইছে আমি গাছগুলো কাটছি। 

Leave a Reply