Sun. Apr 11th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ মেজবাউল হোসেন, নীলফামারী (ডিমলা) প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর ডিমলায় ব্রাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তার মাধ্যমে এক প্রতিবন্ধী নারী ফিরে পেল তার স্বামী, সন্তান ও সংসার।

ডিমলার নাউতারা ইউনিয়নের কাকঁড়া নামক এলাকায় এঘটনাটি ঘটেছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, গত ০৫ জুন ২০১৮ইং তারিখে একটি দূর্ঘটনাচক্রে উক্ত এলাকার মোঃ মোকছেদুল ইসলামের পুত্র মোঃ সাবলু মিয়া (২২) এর সাথে খালিশা চাপানী ইউনিয়নের খালিশা চাপানী গ্রামের মোঃ আইজুল ইসলামের প্রতিবন্ধী মেয়ে মোছাঃ আলিমা বেগম (১৯) পারিবারিক ভাবে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হয়। যাহাতে ছেলের পরিবারের সদস্যগণ কোনো ভাবেই রাজিখুশি ছিলনা। এমতাবস্থায় বিয়ের চারমাস পর আলিমা বেগম একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিলে তার কিছু দিনের মধ্যে তার সন্তানটিকে কেড়ে নিয়ে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে স্বামী গৃহ ত্যাগ করতে বাধ্য করে। আলিমা দীর্ঘ সময় বাবার বাসায় অবস্থান করলেও সন্তান, স্বামী ও সংসার ফিরে পাবার আশা কখনই ছাড়েন নি।

আলিমার বাবা আইজুল ইসলাম জানায়, আলিমার ঘর সংসার ফিরিয়ে দেওয়ার আশায় বিগত ০২ বছরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের কথায় আলিমাকে বহুবার স্বামী গৃহে পাঠালে বারবারই তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে তাড়িয়ে দেয়া হতো।

অবশেষে উপায়ন্ত না পেয়ে গত ২৪ মে ২০২০ইং আইজুল ইসলাম মানবাধিকার কর্মী মোঃ সোহেল হোসেন ও সংবাদকর্মী মোঃ মেজবাউল হোসেন এর শরণাপন্ন হলে তারা বিষয়টি পর্যালোচনা করে ব্রাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচি’র নিকট একটি লিখিত আবেদন প্রদান করেন।

ব্রাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচী’র ডিমলা শাখা ম্যানেজার শ্রী নিখিল চন্দ্র রায় এর নেতৃত্বে ফিল্ড অফিসার মমিনুর রহমান কাজল সহ বিষয়টি মাঠ পর্যায়ে পর্যবেক্ষন করে দুই পক্ষের অভিমত বিশ্লেষণ করে সাবলু ও আলিমা পুনরায় সংসার জীবন শুরু করবে মর্মে একটি প্রতিবেদন পেশ করে।

উক্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০ইং তারিখে একটি শালিসি বৈঠকের আয়োজন করে আলিমাকে তার স্বামী গৃহে পাঠানো হয়।

উক্ত শালিসি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা ও বাস্তবায়ন সংস্থার বিভাগীয় উপদেষ্টা ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, ডিমলা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোহেল হোসেন, ব্রাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচীর ম্যানেজার শ্রী নিখিল চন্দ্র রায়, ফিল্ড অফিসার মমিনুর রহমান কাজল, ডিমলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ঐক্য পরিষদ এর প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক মেজবাউল হোসেন, ছাত্রলীগ নাউতারা ইউনিয়ন সভাপতি শহিদুল ইসলাম সাজু, ছাত্রনেতা সাদ্দাম হোসেন, সমাজসেবক আব্দুর রশিদ মিয়া সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এসময় উক্ত দম্পতীর ভালো মন্দ খোঁজখবর রাখার নিমিত্তে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের মধ্য থেকে ০৭ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

Leave a Reply