Tue. Apr 13th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রোববারই নতুন মৌসুমে পিএসজির জার্সিতে মাঠে নেমেছিলেন নেইমার। কিন্তু তার ফেরাটা সুখকর হয়নি। লিগ ওয়ানের ম্যাচে মার্সেইয়ের বিপক্ষে অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে ধাক্কাধাক্কিতে জড়ায় দুই দলের খেলোয়াড়রা। ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচে ঘরের মাঠে মার্সেইয়ের কাছে ১-০ গোল হেরেছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। লিগের প্রথম ম্যাচে লেঁসের কাছেও একই ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল তারা। দুই ম্যাচে খেলে ফেললেও টমাস টুখেলের শিষ্যদের ঝুলিতে তাই নেই কোনো পয়েন্ট।

শারীরিক শক্তি প্রদর্শনের ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন দুই দলের খেলোয়াড়রা। ধাক্কাধাক্কি, মাথায় আঘাত করা, লাথি দেওয়া- কী ঘটেনি! ফলে লাল কার্ড দেখেন পিএসজির নেইমার, লেয়ান্দ্রো পারেদেস ও লেভিন কুরজাওয়া এবং মার্সেইয়ের দারিও বেনেদেত্তো ও জর্ডান আমাভি।

গঞ্জালেজকে নেইমার আঘাত করলেও শুরুতে তাকে লাল কার্ড দেখানো হয়নি। পরে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে ২৮ বছর বয়সী তারকাকে মাঠ ছাড়ার নির্দেশ দেন রেফারি। বেরিয়ে যাওয়ার সময়ই ফোর্থ অফিসিয়ালের কাছে বর্ণবাদের শিকার হওয়ার অভিযোগ জানান নেইমার। পরবর্তীতে তিনি ক্ষোভ ঝারেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে, ‘আমার একটাই দুঃখ হচ্ছে, এই নির্বোধটার গালে চড় মারলাম না।’

আরেকটি টুইটে আলভারোর শাস্তিও চেয়েছেন নেইমার, ‘ভিএআর সহজেই আমার আক্রমণাত্মক আচরণ দেখতে পেল… এখন আমি সেই ছবিও দেখতে চাই যেখানে ওই বর্ণবিদ্বেষী আমাকে (বানর) বলে গালি দিয়েছে… আমি এখনই সেটা দেখতে চাই। কী হলো? আমাকে ঠিকই শাস্তি দেওয়া হলো। আমাকে মাঠে থেকে বের করে দেওয়া হলো…ওদের কিছু হবে না? কী ব্যাপার?’

স্প্যানিশ ফুটবলার আলভারো অবশ্য নেইমারের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। পাশাপাশি সেলেসাও ফরোয়ার্ডকে দিয়েছেন খোঁচা। তিনিও নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, ‘বর্ণবিদ্বেষের কোনো স্থান নেই।… মাঝে মাঝে আপনাকে হারতে শিখতে হবে এবং মাঠের ভেতরে এটাকে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।’

Leave a Reply