Tue. Apr 13th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রানের বন্যা বইয়ে দিচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলো। চলছে চার-ছক্কার ধুম-ধাড়াক্কা লড়াই। এত বড় বড় ছক্কা হচ্ছে যে, বল পর্যন্ত হারিয়ে যাচ্ছে স্টেডিয়ামের বাইরে। অহরহ হচ্ছে বাউন্ডারি। মোট কথা, দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই জমে উঠেছে এবারের আইপিএল।করোনাভাইরাসের কারণে ২৯ মার্চ শুরু হতে পারেনি আইপিএলের ১৩তম আসর। সেই আইপিএল অবশেষে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আরব আমিরাতের মাটিতে। ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে এবারের আসর। এরই মধ্যে প্রতিটি দল খেলে ফেলেছে ৫ থেকে ৬টি করে ম্যাচ।

এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে আইপিএলের শেষ চারে ঠাঁই করে নেবে কোন চারটি দল- সে হিসেব-নিকেশ। তবে বোঝা যাচ্ছে, আইপিএলের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত লড়াই জারি থাকতে পারে সেরা চারটি দল নির্ধারণের। কারণ, প্রতিটি ম্যাচেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। উল্লেখযোগ্যসংখ্যক জয় পাচ্ছে প্রায় প্রতিটি দলই।

তকে শুধুমাত্র কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ছাড়া। এই দলটি প্রতি বছরই (এক বা দু’বার ছাড়া) প্রায় তলানীর দিকে থাকে। এবারও রয়েছে। ৫ ম্যাচ খেলে তারা জিতেছে মাত্র ১টিতে। অর্জন মাত্র ২ পয়েন্ট। স্বাভাবিকভাবেই দলটি রয়েছে একেবারে তলানীতে।

এবারের আইপিএলে বরাবরের মতই ভালো খেলছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। পাশাপাশি তরুণ অধিনায়ক স্রেয়াশ আয়ারের দল দিল্লি ক্যাপিটালসও খেলছে ভালো। এই দুই দলেরই অর্জন সর্বোচ্চ ৮ পয়েন্ট করে। যদিও রান রেটে এগিয়ে রয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তারা খেলেছে ৬টি ম্যাচ। অন্যদিকে পয়েন্ট সমান হলেও দিল্লি খেলেছে কেবল ৫ ম্যাচ।

দর্শকছাড়া আইপিএল। যেন লবন ছাড়া তরকারি। কিন্তু আরব আমিরাতের মাটিতে দর্শক ছাড়া আইপিএল হলেও খেলাগুলো কিন্তু জমে উঠছে দিনের পর দিন।

রানের বন্যা বইয়ে দিচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলো। চলছে চার-ছক্কার ধুম-ধাড়াক্কা লড়াই। এত বড় বড় ছক্কা হচ্ছে যে, বল পর্যন্ত হারিয়ে যাচ্ছে স্টেডিয়ামের বাইরে। অহরহ হচ্ছে বাউন্ডারি। মোট কথা, দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই জমে উঠেছে এবারের আইপিএল।করোনাভাইরাসের কারণে ২৯ মার্চ শুরু হতে পারেনি আইপিএলের ১৩তম আসর। সেই আইপিএল অবশেষে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আরব আমিরাতের মাটিতে। ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে এবারের আসর। এরই মধ্যে প্রতিটি দল খেলে ফেলেছে ৫ থেকে ৬টি করে ম্যাচ।

এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে আইপিএলের শেষ চারে ঠাঁই করে নেবে কোন চারটি দল- সে হিসেব-নিকেশ। তবে বোঝা যাচ্ছে, আইপিএলের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত লড়াই জারি থাকতে পারে সেরা চারটি দল নির্ধারণের। কারণ, প্রতিটি ম্যাচেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। উল্লেখযোগ্যসংখ্যক জয় পাচ্ছে প্রায় প্রতিটি দলই।

তকে শুধুমাত্র কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ছাড়া। এই দলটি প্রতি বছরই (এক বা দু’বার ছাড়া) প্রায় তলানীর দিকে থাকে। এবারও রয়েছে। ৫ ম্যাচ খেলে তারা জিতেছে মাত্র ১টিতে। অর্জন মাত্র ২ পয়েন্ট। স্বাভাবিকভাবেই দলটি রয়েছে একেবারে তলানীতে।

এবারের আইপিএলে বরাবরের মতই ভালো খেলছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। পাশাপাশি তরুণ অধিনায়ক স্রেয়াশ আয়ারের দল দিল্লি ক্যাপিটালসও খেলছে ভালো। এই দুই দলেরই অর্জন সর্বোচ্চ ৮ পয়েন্ট করে। যদিও রান রেটে এগিয়ে রয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তারা খেলেছে ৬টি ম্যাচ। অন্যদিকে পয়েন্ট সমান হলেও দিল্লি খেলেছে কেবল ৫ ম্যাচ।

Leave a Reply