Fri. Apr 23rd, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্রী তপন চক্রবর্ত্তী বলেছেন স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে জাতীয় পার্টির ৯ বছরের শাসনকালে পল্লীবন্ধু এরশাদ এদেশের শ্রমজীবীদের জীবনমান উন্নয়নে ২ ঈদে ২টি বোনাস, গ্র্যাচুয়েটি প্রদান করেছিলেন। বন্ধ মিল-কারখানা চালুর পাশাপাশি নতুন নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে বেকারদের কর্মসংস্থান, শ্রমিকের জন্য হাসপাতাল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আবাসনের ব্যবস্থা করেছিলেন। যা অন্য কোন সরকার করতে পারে নাই। পল্লীবন্ধু এরশাদ ছিলেন শ্রমিকবান্ধব নেতা। তাই এদেশের শ্রমজীবীদের ভাগ্যোন্নয়নে পুনরায় জাতীয় পার্টিকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে।

তিনি আগামী ১০ নভেম্বর চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিতব্য গণতন্ত্র রক্ষা দিবসের আলোচনা সভা সফল করতে নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

তিনি আজ ৩০ অক্টোবর বিকাল ৪টায় চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় শ্রমিক পার্টির পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। নগর শ্রমিক পার্টির আহ্বায়ক ওসমান খানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব হারুনুর রশীদ হারুনের পরিচালনায় পাহাড়তলী ভেলুয়ারদীঘি চত্বরে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন যুব সংহতির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক নাছির উদ্দিন ছিদ্দিকী, নগর জাপা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী বাবুল আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, হাজী শওকত আকবর, নগর যুব সংহতির যুগ্ম আহ্বায়ক কায়সার হামিদ মুন্না, নগর কৃষক পার্টির সভাপতি এনামুল হক বেলাল, আকবরশাহ্ থানা জাপার সভাপতি ফজলে আজিম দুলাল, নগর জাপা নেতা সামশুল আলম বি.কম, কোতোয়ালী থানা জাপা সভাপতি আমিনুল হক আমিন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইপিজেড থানা জাপা সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ, নগর শ্রমিক পার্টির যুগ্ম আহ্বয়ক সাহাব উদ্দিন, মোশারফ হোসেন, মো. শাহজাহান, দক্ষিণ জেলা শ্রমিক পার্টির সভাপতি মো. সুমন, নাসিরাবাদ শিল্পাঞ্চল শ্রমিক পার্টির সভাপতি সোলতান আহমেদ, আমিন জুটমিল শ্রমিক পার্টির সভাপতি হাফিজুর রহমান মিন্টু, শ্রমিক নেতা জসিম উদ্দিন, হাজী আলী আকবর, জামাল উদ্দিন কান্টু প্রমুখ।

Leave a Reply