Tue. Apr 13th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জুয়েল ইসলাম শান্ত,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : লোকমুখে পরিচিত পাখিগুলোর কলরবে যেন মুগ্ধ চারদিক। অনেকেই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়েই শুনেন এই চড়ুই পাখিদের কিচিরমিচির গল্প অথবা ঝগড়া। কেউবা আবার ছবি তুলেন। এক জায়গায় শত শত চড়ুই পাখি দেখে যেন মনটা জুড়ে যায়।

ঠিক এমনি একটি দৃশ্য চোখে পড়ে শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গেলে। যানবাবহনের শব্দের মাঝে শুনা গেলো একটি মিষ্টি শব্দ। মাথা উচু করে করে দেখাতেই চোখে পড়লো হাজারো চড়ুই পাখির সমাগম।

সারেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার ধারে কারেন্টের তারের উপরে বসে আছে হাজারো পাখি। এতো যানবাহনের শব্দের মধ্যেও শুনাযাচ্ছে পাখিগুলো কিচির-মিচিড় শব্দ। কেউবা বসেছে তারের উপরে কেউবা উড়ে গিয়ে বসছেন বিভিন্ন গাছের উপরে। হাজারো পাখির কিচিড়-মিচিড়ে মুগ্ধ হয়ে উঠেছে পুরো বাসস্ট্যান্ড এলাকটি।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিন বিকেলেই এই বাসস্ট্যান্ড মোড়ে কারেন্টের তারে ও আশে পাশের গাছগুলোতে পাখির কিচির-মিচির শব্দ জানিয়ে দেয় তাদের উপস্থিতি। সংখ্যায় প্রায় হাজারের মতো হবে। চারপাশের তার ও গাছগুলোতে ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে বসে তারা। বিকেল থেকে পরের দিন ভোর পর্যন্ত থাকেন এই পাখিগুলো। ভোর হলেই বেড়িয়ে পরে খাবারের লক্ষে। আবরো ফিরে আসে বিকেলে। যখন ফিরে আসে তখনি তাদের কিচির-মিচিরে মুখরিত হয়ে উঠে এলাকাটি।

বাসস্ট্যান্ড এলাকার হোটেল ব্যবসায়ী জুয়েল ইসলাম শান্ত বলেন, প্রতিদিন সন্ধ্যায় পাখিগুলো ঝাঁক বেধে ফিরে আসে আমাদের এই বাসস্ট্যান্ড। পাখিগুলো দেখতে অনেক ভালোই লাগে। বিশেষ করে যখন ঝাঁক বেঁধে উড়ার দৃশ্য দেখি তখন অনেক বেশি ভালো লাগে। দোকন থেকে প্রতিদিন এই দৃশ্যটি দেখতে অনেক ভালো লাগে।

রাস্তার পাশে কথা হয় পথচারী ইকবাল হোসেনের সাথে। তিনি বলেন এতোগুলো চড়ুই পাখি একসাথে কিচির-মিচিড় করছে। আসলেই বিষয়টি অনেক সুন্দর জনক। পাখিগুলো দেখতে অনেক ভালো লাগছে।

ঠাকুরগাঁওয়ের পাখিপ্রেমীক রেজাউল হাফিজ রাহী বলেন,এই চড়ুই পাখিগুলো জনবসতির মধ্যে থাকতে অনেক বেশি ভালোবাসে। যার কারনে এদের বলা হয় স্প্যারো। যেহেতু এই পাখিগুলো জনবসতির মধ্যে থাকতে ভালোবাসে সেজন্য কেউ যাতে এই পাখিদের মারার চেষ্টা না করেন সকলের কাছে এমনি আহবান করেন তিনি।

Leave a Reply