Tue. Apr 13th, 2021
Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরুদ্ধে রাজধানীতে ডাকা বিক্ষোভ মিছিলে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। একপর্যায়ে লাঠিচার্জ করে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

শুক্রবার জুমা নামাজের পর কয়েকশ’ মাদ্রাসা শিক্ষার্থী বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেট থেকে ভাস্কর্যবিরোধী স্লোগান দিতে শুরু করে।

এ সময় পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এতে শিক্ষার্থীরা পুলিশের সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এর পরও মিছিল নিয়ে বের হয় বিক্ষোভকারীরা। তবে শান্তিনগরে পৌঁছলে পুলিশি বাধায় তা পণ্ড হয়ে যায়। সেখান থেকে কয়েকজন আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।

জানা যায়, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির সৈয়দ ফয়জুল করীম ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মামুনুল হকের অনুসারীরা ভাস্কর্যের পাশাপাশি ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধেও স্লোগান দেয়। তবে তারা কোনও আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেয়নি। সেই সঙ্গে মিছিলে ছিল না কোনও ব্যানার কিংবা ফেস্টুন। শিক্ষার্থীদের ভাষ্য, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামে একটি সংগঠন সম্প্রতি ফয়জুল করীম ও মামুনুল হককে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছে এবং তাদের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানের শিক্ষার্থীরা বায়তুল মোকাররমে এসেছিলেন বিক্ষোভ মিছিল করতে। কিন্তু পুলিশ তাদের বাধা দিয়েছে।

রমনা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, জুমার নামাজের পর হঠাৎ ১০০/১৫০ জনের মতো মুসল্লি ‘তৌহিদী জনতা’র ব্যানারে একটি মিছিল বের করে। তাদের থামিয়ে দাবি সম্পর্কে জানতে চাইলে সে বিষয়ে কোনও জবাব না দিয়ে উল্টো পুলিশের ওপর চড়াও হয়। পরে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়। ওই মিছিল থেকে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার জন্য সাত-আটজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

Leave a Reply