দেশ বাণী ডেস্ক

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ নিধন, আন্তর্জাতিক প্রকল্প বাস্তবায়নে গাছ কাটার দাবি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর|দেশবানী

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশবানী অনলাইন ডেস্ক: সবুজ ধ্বংস করে রাজধানীতে গড়ে উঠছে কংক্রিটের জঞ্জাল। এবার তার শিকার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানও। উদ্যানে নির্মাণ হচ্ছে সাতটি রেস্তোরাঁ। তাই কাটা পড়ছে পুরনো গগণ শিরিষ, সেগুন গাছের মতো শত শত প্রাচীন গাছ। প্রতিদিনই বাড়ছে কাটা গাছের সংখ্যা।’

উদ্যানের বুকে যেখানে ছিল সবুজের গালিচা সেখানে এখন রুক্ষ ক্ষত। রাজধানীর ফুসফুস সোহরাওয়ার্দী উদ্যান আজ আক্রান্ত ক্যান্সারে।,

উদ্যান জুড়ে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ এই গাছ কাটার কারণ। এখানে সেখানে একতলা স্থাপনা নির্মাণ হচ্ছে। কোথাও ওয়াকওয়ে নির্মাণের জন্য মাটিকেটে রাখা হয়েছে।

নগরীতে সবুজ কমছে দিন দিন। নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কাটায় মারাত্মক হুমকির মুখে পড়বে রাজধানীর পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যা।”

নগর পরিকল্পনাবিদ ইকবাল হাবিব বলেন, নগরীর ফুসফুসে যারা করোনার মতো আঘাত করে চলেছেন, ১৫-৪০ বছর পুরানো গাছগুলো যারা নির্বিচারে কাটছেন তারা অবশ্যই দুর্বৃত্তসুলভ আচরণের জন্য দায়ী। তাদের কঠোরভাবে অনুশাসনে আনা প্রয়োজন। সৌন্দর্যবর্ধন বৃক্ষরোপনের মধ্যে নিহিত, নিধনের মধ্যে নয়।’

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের দেখভালের দায়িত্ব মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের। মন্ত্রীর দাবি, আন্তর্জাতিক মানের প্রকল্প বাস্তবায়নে গাছ কাটছেন তারা।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক যমুনা নিউজকে বলেন, এটা তো বন না। আন্তর্জাতিকমানের স্থাপনা হচ্ছে এখানে। বিদেশিরা আসবে, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্নগুলো দেখবে। সারা মাঠভরা সেখানে বিভিন্ন স্থাপনা হবে। মুক্তিযুদ্ধের সুতিকাগার সোহরওয়ার্দী উদ্যানকে আন্তর্জাতিক মানে গড়ে তুলতে কিছু কিছু বৃক্ষ কাটা হচ্ছে।,

রাজধানীবাসীর বুকভরে শ্বাস নেওয়ার জন্য নির্মল পরিবেশের যে অভাব, তার কিছুটা হলেও পূরণ করে এই উদ্যানটি। তাই উদ্যানের গাছ কেটে স্থাপনা নির্মাণ করায় ক্ষোভ জানিয়েছেন নগরবাসী।

Leave a Reply