সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে নীলফামারীতে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আসাদুজ্জামান পাভেল,ডিমলা, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে নীলফামারীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

বৃহঃস্পতিবার (২০ মে) সকালে শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে নীলফামারী জেলা রিপোটার্স ইউনিটির আয়োজনে স্বত:স্ফুর্তভাবে জেলার শতাধিক সংবাদকর্মী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি নুর আলম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে বক্তব্য প্রদান করেন নীলফামারী মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান সারোয়ার মানিক, সদর উপজেলা স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মৃনাল কান্তি রায়, নীলফামারী প্রেস ক্লাবের সভাপতি সামসুল হক, বাংলাদেশ প্রেসক্লাব নীলফামারী জেলা শাখার সদস্য সচিব আব্দুল বারী, মাই টিভির জেলা প্রতিনিধি আজিজুল হক বুলু, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম সিয়াম, জেলা রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক নাসির উদ্দিন শাহ্ মিলন।’

 এছাড়া দৈনিক ভোরের পাতার জেলা প্রতিনিধি আবুল শাহ্, দৈনিক নবচেতনার জেলা প্রতিনিধি হামিদুল্লাহ সরকার, বাংলা ট্রিবিউনের জেলা প্রতিনিধি তৈয়ব আলী সরকার, নিউজ টুয়েন্টিফোর টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি আব্দুর রশিদ শাহ্, জলঢাকা উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মৃত্তঞ্জয় রায়, সাধারণ সম্পাদক সুমন ইসলাম, ডোমার রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি জুলফিকার আলী ভুট্টু, সাধারণ সম্পাদক রওশন  আলম পাপ্পু ডিমলা রিপোর্টার্স ইউনিটির যগ্ন আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম সদস্য সচিব আসাদুজ্জামান পাভেল সহ কিশোরগঞ্জ উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে রোজিনা ইসলামকে কারাগারে পাঠানো স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য একটি অশনি সংকেত। দুর্নীতিবাজ আমলা তাদের অপকর্মকে ধামাচাপা দিতে এই নাটক সাজিয়েছেন। অবিলম্বে রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করে তাকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে অন্যথায় সাংবাদিকরা আরো কঠোর আন্দোলনের ডাক দিবে। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি যখন যে কর্মসূচির নির্দেশনা দিবে সে অনুযায়ী আমরা জেলা ও উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকরা সে কর্মসূচিগুলো পালন করবো।

Leave a Reply