দেশ বাণী ডেস্ক সারা বাংলা

সাংবাদিক রোজিনা হেনস্তা: দুর্নীতিবাজ আমলাদের বিচারের দাবি|Deshbani

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি- স্বাস্থ্য ও পরিবার মন্ত্রণালয়ের নানারকম দুর্নীতি অনিয়মের প্রতিবেদ করায় ও ধারাবাহিক প্রতিবেদন তৈরি জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে যাওয়ায় প্রথম আলোর জৈষ্ঠ্য সাংবাদি রোজিনা ইসলামকে ৫ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে আটকে রেখে তাকে শারিরীক ও মানসিক হেনস্তার ঘটনায় দুর্নীতিবাজ আমলাদের প্রতি তীব্র নিন্দা, ধিক্কার ও বিচার দাবি করে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ঠাকুরগাঁওয়ের সাংবাদিক সমাজ।’

ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় শহর চৌরাস্তায় এ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদী সামবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় ঠাকুরগাঁও প্রেস ক্লাবের সভাপতি মনসুর আলীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মো: আব্দুল লতিফ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক বদরুল ইসলাম বিপ্লব, ডেইলি স্টারের জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাবের সদস্য কামরুল হাসান রুবায়েত, সিনিয়র সাংবাদিক শাহীন ফেরদৌস, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি মজিবর রহমান খাঁন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আমিন সরকার।’

এ সময় বক্তারা বলেন, এই করোনাকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রাণলয়ের নানা ধরণের অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবেদন তুলে ধরে ধারাবাহিক ভাবে জনগণকে সংবাদ পরিবেশন করে সচেতন করেছেন প্রথম আলোর প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম। সেই ধারিবাহিকতায় পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য গত সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে তথ্য সংগ্রহকরতে যান তিনি। সে সময় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চুরি ও দুর্নীতির নানা তথ্য এই প্রতিবেদকের কাছে ধরা পড়লে তাকে ৫ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রেখে তাকে শারিরীক ও মানসিকভাবে হেনস্তা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি গ্রস্থ কর্মকর্তারা। পরে নিজেদের দুর্নীতির খবর ধামাচাপা দিতে তাকে তথ্য চুরির দায়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে ফাসানো হয়। বক্তারা বলেন, যেখানে তথ্য পাওয়া অধিকার সেখানে তথ্যচুরির দায়ে মিথ্যা মামলা দেয়া মানে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতাকে বাধাগ্রস্থ করা ও দুর্নীতিবাজদেরকে দুর্নীতিবাজদের দুর্নীতি করার সুযোগ করে দেয়ার সমান।

বক্তারা আরও বলেন, করোনাকালে সংবাদমাধ্যমে অবাধ স্বাধীনতার কথা বলা হচ্ছে সেখানে কন্ঠরোধ করার জন্য সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সহ গণবিরোধী আইন সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যমের উপর প্রয়োগ করার মধ্য দিয়ে কণ্ঠরোধ করার চেষ্টা চলছে। এ সময় বক্তারা বাংলাদেশে সাংবাদিকদের উপর নির্যাতন বন্ধ ও হেনস্তার প্রতিবাদ জানান, সেই সাথে রোজিনা সহ সকল সাংবাদিকের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তাঁদের নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানান এবং সাগর রুনির হত্যা পেছনে কাদের কাদের কালোহাত রয়েছে সেগুলো খুঁজে বের করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা।

Leave a Reply