দেশ বাণী ডেস্ক দেশজুড়ে

ট্রিপস চুক্তির শর্ত প্রত্যাহার চায় বাংলাদেশ | Deshbani

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ডেস্ক রিপোর্ট:জেনেভার বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন জানায়, অধিবেশনে বাংলাদেশের মতো উৎপাদনে সক্ষম উন্নয়নশীল দেশগুলোয় কোভিড ভ্যাকসিন ও অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রীর উৎপাদন বৃদ্ধি করে তা দ্রুত অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশে বিনামূল্যে সর’বরাহের জন্য বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জোর দাবি জানানো হয়।

একইসঙ্গে অধিবেশনে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল কোভিড-১৯ ও এর আর্থসামাজিক প্রভাব মোকাবিলায় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন ও ভ্যাকসিন প্রদান সংক্রান্ত কার্যক্রম এবং প্রণোদনা প্যাকেজসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের বিভিন্ন কার্যকর উদ্যোগসমূহ সম্পর্কে আন্ত’র্জাতিক সম্প্রদায়কে অবহিত করে।’


করোনা’ভাইরাস নির্মূলে টিকা, ওষুধ ও অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রী উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) ট্রিপস চুক্তির বাধ্য’বাধকতাসমূহ সাময়িক’ভাবে প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনের ৭৪তম অধিবেশনে এ আহ্বান জানানো হয়।’


গত ২৪ মে থেকে ১ জুন পর্যন্ত সুইজার’ল্যান্ডের জেনেভায় অনুষ্ঠিত হয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনের ৭৪তম অধিবেশন। এতে ভার্চুয়ালি অংশ নেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। এবারের সম্মেলনে কোভিড-১৯ সংকট মোকাবিলায় ভ্যাকসিন উৎপাদন, সরবরাহ ও সুষম বণ্টনের বিষয়টি বিশেষ’ভাবে প্রাধান্য পায়।


সম্মেলনে বাংলাদেশ ‘ওয়ান হেলথ গ্লোবাল লিডার্স গ্রুপ অন অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিসট্যান্স’র কো-চেয়ার হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃস্থানীয় ভূমিকার কথা তুলে ধরে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিসট্যান্স মোকা’বিলায় বৈশ্বিক সচেতনতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্ব আরোপ করে। এছাড়া বাংলাদেশ বিশ্বব্যাপী মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন ও একটি শক্তিশালী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গড়ে তোলার জন্য টেকসই অর্থায়ন নিশ্চিতকরণের উপর জোর দেয়।


সম্মেলনে জেনেভায় জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মো. মোস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের ১১টি দেশের পক্ষ থেকে মানসিক স্বাস্থ্য ও অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিসট্যান্সের উপর দুটি যৌথ বিবৃতি প্রদান করেন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনের ৭৪তম অধিবেশনের পাশাপাশি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাহী পরিষদ এবং প্রোগ্রাম, বাজেট ও প্রশাসন কমিটির দুটি গুরুত্বপূর্ণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।’

বাংলাদেশ উভয় কমিটির নির্বাচিত সদস্য হিসেবে এসব সভায় অংশগ্রহণ করে। এবারের সম্মেলনে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ের উপর মোট ৩৫টি প্রস্তাব ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।-দেশবানী

Leave a Reply