দেশ বাণী ডেস্ক সারা বাংলা

কিশোরগঞ্জে টাকার অভাবে মেধাবী ছাত্রের চিকিৎসা করাতে পারছে না পরিবার

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রউফুল আলম, স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারীঃ

“কিশোরগঞ্জে টাকার অভাবে মেধাবী ছাত্রের চিকিৎসা করাতে পারছে না অসহায় পরিবার”। নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মজিদুল ইসলামের প্রথম পুত্র মোস্তাকিম (১৪) দীর্ঘ ১ বছর যাবত দুটি কিডনি সমস্যায় ভুগছেন।

মেধাবী ছাত্র মোস্তাকিম চাঁদখানা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি ২০২১ পরিক্ষার্থী। হঠাৎ ধমকে গেলো তার জীবন। সে কঠিন রোগে আক্রান্ত। দু’টি কিডনি ড্যামেজ।

কিশোরগঞ্জে টাকার অভাবে
কিশোরগঞ্জে টাকার অভাবে মেধাবী ছাত্রের চিকিৎসা করাতে পারছে না অসহায় পরিবার 


সে এক গরীব পরিবারে সন্তান। সবার মত তারও স্বপ্ন ছিলো বড় হয়ে দেশ- মাটি- মানুষের কল্যাণে কাজ করার।


কিন্তু তার রোগের কারণে স্বপ্ন শুধুই ধোঁয়াসা। দীর্ঘ এক বছর যাবত তার পরিবার চিকিৎসা চালাচ্ছে। তাদের শেষ সম্ভলটুকু ও বিক্রি করে ছেলেকে বাঁচাতে আপ্রাণ চেষ্টা করছেন।


তার চিকিৎসার জন্য কয়েক লক্ষ টাকার প্রয়োজন। অত্র এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সংগঠন, সমাজসেবক তাকে আর্থিক ভাবে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। দিয়েছেন ফেসবুক গ্রুপ কিশোরগঞ্জ। চরম বিপাকে পড়েছে মোস্তাকিমের পরিবার আর্থিক দিক এবং ছেলেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।,


মোস্তাকিম বাঁচার আকুুুতি জানিয়ে

প্রাণ উজার করা এক বুুুক ভরা আশা নিয়ে বলেন, আমি বাঁচতে চাই, দয়া করে সকলে আমাকে সহয়তা করুন। যারা ইতিমধ্যে সহায়তা করেছেন তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ।

আমি আবার স্বাভাবিক ভাবে জীবন- যাপন করতে চাই। দেশ- মাটি-মানুষের পাশে থাকতে চাই। দয়া করে সকলে আমাকে সহায়তা করেন। এই অবস্থায় আমার খুব কষ্ট হচ্ছে ১ বছর থেকে আমি ভালোভাবে কিছু খেতে পারিনা, চলতে পারিনা, আমি আর এভাবে থাকতে পারছিনা।’

এ বিষয়ে মোস্তাকিমের মা বলেন, আমার এটি কলিজার টুকরা ছেলে, আমি একে বাঁচাতে চাই। আমার ছেলের চিকিৎসায় আমাদের সবকিছু শেষ হয়েছে গেছে। তার চিকিৎসা চালানোর মত আর কোনে উপায় নেই। আপনারা সকলে দয়া করে আমার ছেলেকে সাহায্য করুন। এই বলে তার মা কান্নায় ঢলে পড়েন।

চাঁদখানা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোস্তাহিদুর রহমান মুক্তা বলেন, মোস্তাকিম খুবেই মেধাবী ছাত্র। তাকে বাঁচাতে শিল্পপতি ও সমাজের বিত্তবানদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। 

ডাঃ আখিনুজ্জামান নিপু জানান, আমরা ফেসবুক গ্রুপ থেকে আসছি। দুটি কিডনিই ড্যামেজ। তিনি জানান, আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী যে যতটুকু পারি সাহায্য – সহযোগিতা করি। পাশা- পাশি সমাজের বিত্তবান ও সহৃদয়বান ব্যক্তিদের মেধাবী ছাত্র মোস্তাকিমকে বাঁচানোর জন্য সকলেকেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে মোস্তাকিমকে সাহায্য করি।

মোস্তাকিমের পরিবারের সাথে যোগাযোগ নাম্বার

০১৭১৫৩৩৮৬২১ বিকাশ+ রকেট (রোগির বাবা)

০১৩১৪২৬৩৫২২ বিকাশ (রোগির নিজস্ব)

০১৭৮৩৮২৪৮৪৯ নগদ (রোগির মা)।

Leave a Reply