দেশ বাণী ডেস্ক দেশজুড়ে

ঘোড়াঘাট থানার সাবেক ওসি আজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোহাম্মদ লুৎফর রহমান,হিলি প্রতিনিধি।। ঘোড়াঘাট থানার সাবেক ওসি আজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন।।
সাংবাদিকের উপর মিথ্যা মামলা ও হয়রানির অভিযোগে দিনাজপুরের হাকিমপুর প্রেসক্লাবে ঘোড়াঘাট থানার সাবেক ওসি আজিম উদ্দিনসহ অনেকের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ইফতেখার আহমেদ বাবু।’

তিনি “দৈনিক ডেলটা টাইমস” পত্রিকার ঘোড়াঘাট প্রতিনিধিঃ। এছাড়াও ঘোড়াঘাট উপজেলার আওয়ামীলীগের ৮ নং ওয়ার্ডে সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুবলীগের সদস্য।


শুক্রবার (২০ আগস্ট) দুপুরে হাকিমপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক বাবু সাংবাদিকদের বলেন,গত ২৫ ডিসেম্বরে ঘোড়াঘাট থানার ওসি আজিম উদ্দিনের অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয় আমার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে ছিলাম এবং এবিষয়ে নিউজ করার প্রস্তুতি নেয়।’

পরে ৩০ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ১০ টায় থানার ওসি আজিম উদ্দিনসহ থানার এসআই জিয়া,এসআই দুলু, এসআই খুরশিদ, এএসআই ছারোয়ার ও কনেস্টবল মাসুম, কনেস্টবল মোস্তফা,কনেস্টবল ওবায়দুর,কনেস্টবল মেহেদি আমার বাড়িতে হামলা চালায়।

তখন তারা আমার বাড়ির দরজা ভাঙার চেষ্টা করে। পরে তারা বাড়ির প্রাচির টপকে ভিতরে প্রবেশ করে। বাড়িতে প্রবেশ করে আমাকে মারপিট করতে থাকে এবং আমার স্ত্রীকে মারপিটসহ শ্লীলতাহানি করে।

ঘোড়াঘাট থানার সাবেক

পরে বাড়ি ভাংচুর করে প্রায় ৯.৩০.০০০ টাকা এবং আমার স্ত্রীর গলার চেনসহ পাঁচ ভরি সোনা, আমার ব্যবহারকৃত ল্যাবটপ, ক্যামেরা,মোবাইল ফোন ও আমার স্ত্রীর একটি প্রাইভেটকার এবং আমাকেসহ রাত সাড়ে ১১ টার দিকে থানায় নিয়ে যায়।

থানায় নিয়ে তারা সারারাত আমাকে শারীরিক নির্যাতন ও কারেন্ট শট দিয়ে ল্যাবটপ ও মোবাইলের পাসওয়ার্ড নিয়ে নেয়। পরদিন আমার স্ত্রীর প্রাইভেটকার চুরির মামলা এবং ডিজিটাল মামলা করে দিনাজপুর জেলহাজতে প্রেরণ করেন। এতে করে ১২৭ দিন জেলখানায় আমি থাকি।

এর ফাঁকে ওসি আজিম উদ্দিন আমার বিরুদ্ধের মোট ৯ টি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।’


দীর্ঘ ১২৭ দিন জেল খেটে এসে দেখি আমার বিরুদ্ধে ১০ টি মিথ্যা মামলা ওসি আজিম উদ্দিন করান। আমি একজন সাংবাদিক, আজ আমি ১১টি মিথ্যা মামলার আসামি।

তাই আমি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এবং পুলিশ প্রধানের নিকট নিজে স্বশরীরে লিখিত অভিযোগ করি।তারই আলোকে গত ১২ আগস্ট রংপুরের অতিরিক্ত ডিআইজি আমাকে ও আমার প্রতিবেশীসহ জিজ্ঞাসা করার জন্য হাজির হতে বলেন। পরে ডিআইজি আমাদের সকলের জবানবন্দী নেন।’


পরে ওসি আমার উপর আরও ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৫ আগস্ট শোক দিবসে ঘোড়াঘাটে জামাত-বিএনপির নাশকতা পরিকল্পনাকারী হিসাবে আবারও আমাকে জামাত বিএনিপ সক্রিয় সদস্য বানিয়ে মামলা করান ওসি আজিম উদ্দিন। মোট আমার ১১ টি মামলা।’


মিথ্যা মামলা আর হয়রানির ভয়ে আজ আমি সংসার হারা। আমার পরিবারসহ সন্তান-স্ত্রীর সাথে দেখা করতে পারছিনা। তাই আপনারা আমার জাতি ভাই, আমি আজ দিশেহারা,আপনারা আমাকে বাঁচান।,

তিনি এই সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীসহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা করেছেন।-দেশবানী নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *