দেশ বাণী ডেস্ক সারা বাংলা

সোনা পাচারের হোতা দর্শনা পৌর কাউন্সিলর বিল্লাল আটক

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শামসুজ্জোহা পলাশ, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি।। সোনা পাচারের হোতা দর্শনা পৌর কাউন্সিলর বিল্লাল আটক।।
পূর্বাশা পরিবহনের সাবেক সুপার ভাইজার চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌরসভার ০৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সোনা পাচারকারীর মূল হোতা বিল্লাল হোসেন (৩০) কে আটক করেছে পুলিশ।’

জেলার আলমডাঙ্গায় আড়াই কেজি স্বর্ণসহ তিন জন আটক মামলার আসামি তিনি। সে দর্শনা শ্যামপুর গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে।’

বৃহস্পতিবার (১৯ আগষ্ট) জেলার জীবননগর উপজেলার নারায়নপুর গ্রামে বিল্লাল হোসেনের শশুর বাড়ী থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।,

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ টার সময় আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: আলমগীর কবির আটকের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানায়, বুধবার (১৮ আগষ্ট) দুপুর সাড়ে তিন টার দিকে চুয়াডাঙ্গা থেকে পুলিশ ধাওয়া করে ও আলমডাঙ্গা পুলিশের সহযোগীতায় কুষ্টিয়া-চুয়াডাঙ্গা ভায়া আলমডাঙ্গা সড়কের আলমডাঙ্গা বন্ডবিল গেট এলাকায়

একটি প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো-গ-১৭-৮৩৩২) আটক করতে সক্ষম হয়।

সোনা পাচারের হোতা

পরে পুলিশ প্রাইভেট কারের চালক চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলা দর্শনা শ্যামপুরের নুর ইসলামের ছেলে মো. বাপ্পী (৩০), চুয়াডাঙ্গা সদরের বনানীপাড়ার রিপন হোসেনের ছেলে সম্রাট হোসেন (৩৫) ও মাদারীপুর জেলার জালালপুরের বাবু হাওলাদারের ছেলে সুমন হাওলাদার (৩২) আটক করে।

আটকের পর প্রাইভেটকারটি তল্লাশি করে সিটের নিচ তুলা ও স্কচ টেপ দিয়ে মোড়ানো বিশেষ কায়দায় রাখা স্বর্ণালঙ্কারের ৬টি ব্যান্ডেল উদ্ধার করে পুলিশ। যার পরিমাণ ছিলো আড়াই কেজি।’

এসময় আটককৃতদের কাছ থেকে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা জব্দ করা হয়। আটককৃত আসামীদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক মামলার এজেহার ভুক্ত আসামী এই স্বর্ণালঙ্কার চেরাচালানীদের হোতা পূর্বাশা পরিবহনের সাবেক সুপার ভাইজার ও দর্শনা পৌরসভার ০৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেনসহ আরও অনেকের নাম প্রকাশ করে।

প্রাইভেটসহ পাচারকারীরা আটক হলে এদের হোতা পৌর কাউন্সেলর বিল্লাল গা ঢাকা দেয়।

ওসি আরও জানান, আলমডাঙ্গা থানা ও চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ প্রযুক্তি ও সোর্সের মাধ্যমে এই স্বর্ণালঙ্কার পাচার চক্রের হোতা কাউন্সেলর বিল্লালের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে বৃহস্পতিবার ভোরে জীবননগর উপজেলার নারায়নপুর গ্রামে তার শশুর বাড়ী অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়।

আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে বিল্লাল হোসেন স্বর্ণালঙ্কার চেরাচালানী বড় গটফাদাদের প্রকাশ করেছে। পুলিশ বিল্লালের দেওয়া তথ্য যাচাই করে গডফাদারদেরকে আটকের অভিয়ান অব্যহত রেখেছে। আটককৃতদের আদালতে সেপর্দ করে রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *