আলোচিত দেশ বাণী ডেস্ক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশবানী অনলাইন ডেস্ক।। মাইকে ঘোষণা দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা।। কক্সবাজারের পেকুয়ার পুলিশের ওপর হামলা ও আসামি ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় শিক্ষার্থী-নারী মিলে ৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত’সহ ১২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।”

মগনামায় চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিমের অনুসারী ও মুহুরি পাড়া গ্রাম’বাসীর মুখোমুখি অবস্থানের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।,

বুধবার (২৫ আগস্ট) পেকুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) খায়ের উদ্দিন ভূঁইয়া বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলা ৩৩ জনকে এজাহার’নামীয় আসামি করা হয়েছে। অজ্ঞাত’নামা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ৮০-৯০ জন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার মগনামার বাজার পাড়া সংলগ্ন এলাকায় চেয়ারম্যানের ভাইসহ দুজনের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় হামলাকারী’দের ধরতে গেলে মুহুরী পাড়া স্টেশনে মুহুরী পাড়া গ্রামবাসী পুলিশের উপর হামলা করে। এতে পুলিশের তিন সদস্য আহত হন।,

মাইকে ঘোষণা দিয়ে

এ মামলায় উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের মুহুরীপাড়া এলাকার মৃত ছদর উদ্দিনের ছেলে ও পেকুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মমতাজুল ইসলামকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

তাছাড়া পুলিশের দায়ের করা এ মামলায় আসামি করা হয়েছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সরকারি চাকুরিজীবিসহ অসংখ্য রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের।’

গতকাল পুলিশের হাতে আটক হওয়া মুহুরী পাড়ার বাসিন্দা পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন নাজুকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। পরে চকরিয়া সিনিয়র জুডি’শিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।,

মামলার প্রধান আসামী মমতাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনার দিন আমি এলাকায় ছিলাম না। অথচ আমাকে করা হলো প্রধান আসামী। কিছুদিন আগে চেয়ারম্যানের বাহিনীরা আমাকে হত্যা’চেষ্টা চালায়।

থানায় এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। থানা প্রশাসনের এমন আচরণে হতাশ আজ পুরো পেকুয়া’বাসী।’

এদিকে থানা প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পেকুয়া উপজেলার বাসিন্দারা। সামাজিক যোগা’যোগ মাধ্যমে পুলিশের সমা’লোচনা করে রিদুয়ানুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে লিখেন, পেকুয়া থানা পুলিশ আজ মানুষের আস্থা হারি’য়েছে। থানা এখন আর সাধরণ মানুষের নির্ভরতার জায়গায় নেই।

পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কানন সরকার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে। তবে সামা’জিক যোগা’যোগ মাধ্যমে সমালোচনার বিষয়ে মন্তব্য করে রাজি হননি এই পুলিশ কর্মকর্তা।,

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার মগনামার ব্যাংকল চিংড়ি ঘের-এ মাছ ডাকাতিকে কেন্দ্র করে হামলার শিকার হন চেয়ারম্যানের দুই ভাই। পরে চেয়ার’ম্যান অনুসারীরা এলাকার বিভিন্ন বসত ঘর ও গ্রামে সশস্ত্র হামলা করলে মুহুরি পাড়া স্টেশনে মুখো’মুখি অবস্থান নেয় চেয়ারম্যান অনুসারী ও গ্রাম’বাসী।-দেশবানী নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *