দেশ বাণী ডেস্ক সারা বাংলা

পিরোজপুরে পাওনা টাকা না দিয়ে গ্রাহক পেটালো এহসানের গ্রপের মালিকপক্ষ

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


পিরোজপুর প্রতিনিধি :
পাওনা টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে পিরোজপুরে এহসান গ্রæপের মালিকপক্ষের লোকজন মারধার করেছে গ্রাহক মাওলানা ইয়াইয়াকে। আজ বুধবার দুপুরে এ ঘটনায় পিরোজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এহসান গ্রপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাগীব আহসান সহ হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও ভুক্তভোগিদের টাকা ফেরতের দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী গ্রাহকরা। গুরুতর আহত মাওলানা ইয়াইয়া হাওলাদার (২৭) বর্তমানে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।


সংবাদ সম্মেলনে এহসান গ্রæপের ভুক্তভোগী গ্রাহক হারুন-অর-রশিদ জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় পাওনা টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলে এহসান গ্রপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাগীব আহসান ফোন করে পিরোজপুরের সিও অফিস এলাকায় এহসানের অফিসে ডাকে গ্রাহক ইয়াইয়া হাওলাদারকে।

পরে ইয়াইয়া হাওলাদার টাকা আনার জন্য এহসান অফিস কার্যালয়ে গেলে অফিসের দারোয়ান হুমায়ূন কবির প্রথমে ইয়াইয়াকে কিল-ঘুসি দিয়ে জোড় করে অফিসের ভিতরে ধরে নিয়ে যায় এবং অফিসের ভিতরে এহসান গ্রপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাগীব আহসান, রাগীবের ভাই আবুল বাশার খান এবং আরেক ভাই শামীম খান তাকে মারধর করে তার সঞ্চয়পত্র নিয়ে যায়। পরে বিষয়টি ইয়াইয়া পরিবারের সদস্যদের ফোনে জানালে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে গুরুতর আহতবস্থায় পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। এ বিষয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পিরোজপুর সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।


সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ভুক্তভোগীরা আরো জানান, এহসান গ্রæপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাগীব আহসান পিরোজপুর, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জ, খুলনা, ঝালকাঠী সহ আশেরপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে লক্ষাধিক গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকা নিয়ে আত্মসাত করেছে।

এ বিষয়ে প্রশাসন সহ স্থানীয় বিভিন্ন মহলে যোগাযোগ করা হলেও কোন সুরহা পাচ্ছে না সাধারণ ভুক্তভোগী গ্রাহকরা। এছাড়া কোন ভুক্তভোগী গ্রাহক যদি পাওনা টাকা আনার জন্য তাদের অফিসে যায় তাহলে তাদের নানা রকম হুমকি দিচ্ছে এহসানের কর্মকর্তারা।


এ বিষয়ে পিরোজপুর সদর থানার ওসি আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান জানান, এহসান গ্রæপের ভিতরের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তবে তদন্ত করে দেখার পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *